default-image

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগে মাহাফিজুল ইসলাম (২৬) নামের এক নির্মাণশ্রমিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার ভোর সাড়ে চারটার দিকে উপজেলার কুলিয়া দুর্গাপুর এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে গতকাল সোমবার রাতে ১০টার দিকে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা কালীগঞ্জ থানায় মাহাফিজুলকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। গ্রেপ্তার মাহাফিজুল ইসলাম কালীগঞ্জ উপজেলার কুলিয়া দুর্গাপুর গ্রামের বাসিন্দা।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন আজ মঙ্গলবার দুপুরে প্রথম আলোকে জানান, নির্মাণশ্রমিক মাহাফিজুলের খালার বাড়ি উপজেলারই আরেকটি গ্রামে। খালার বাড়িতে মাঝেমধ্যে বেড়াতে যাওয়ার সুবাদে মাহাফিজুলের ওই স্কুলছাত্রীর ওপর কুনজর পড়ে। গতকাল সকালে খালার বাড়ির পাশে একটি বাগানে ওই স্কুলছাত্রীকে একা পেয়ে তাকে ধর্ষণ করেন মাহাফিজুল। এ সময় ওই স্কুলছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে তিনি পালিয়ে যান। এরপর রাতেই ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মাহাফিজুলকে আসামি করে থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। আজ ভোরে পুলিশ মাহাফিজুলের কুলিয়া দুর্গাপুরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

ওসি দেলোয়ার হোসেন আরও জানান, আজ বেলা দুইটার দিকে স্কুলছাত্রীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। একই সঙ্গে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাঁর জবানবন্দি রেকর্ড করার প্রক্রিয়া চলছে। আসামি মাহাফিজুল ইসলামকে দুপুরেই আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0