default-image


গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার ও ৪ ডেপুটি জেলারকে বদলি করা হয়েছে। কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি পালানোর এক মাস পর এই সিদ্ধান্ত এল।

কারাগার সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ আগস্ট কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে পালিয়ে যান কয়েদি মো. আবু বক্কর সিদ্দিক (৩৪)। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ওই ব্যক্তি সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানার আবাদ চন্ডিপুর এলাকার তেছের আলী গাইনের ছেলে। এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে কারা কর্তৃপক্ষ। পরে তদন্ত কমিটিতে আরও দুজনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। কয়েদি পালানোর ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ ওঠে অনেকের বিরুদ্ধে। ৭ কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত ও ৫ কারারক্ষীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার এক মাসের বেশি সময় পরে এসে পাঁচজনকে বদলি করা হলো। তাঁদের মধ্যে কাশিমপুর কারাগার-২ এর জেলার বাহারুল ইসলামকে বদলির আদেশ হয়েছে গত মঙ্গলবার। আর ডেপুটি জেলার ফারুক হোসেন, মনির হোসেন, সোহেল হোসেন ও আখেরুল ইসলামকে বদলির আদেশ হয় আগের দিন সোমবার। তাঁদের বদলি করে বিভিন্ন জেলা কারাগারে পদায়ন করা হয়েছে।

ডেপুটি জেলার ফারুক হোসেন বলেন, ‘আমিসহ চারজন ডেপুটি জেলার ও জেলারকে বদলি করা হয়েছে। তবে কী কারণে তাদের এই সিদ্ধান্ত, তা আমার জানা নেই।’ পালিয়ে যাওয়া ওই কয়েদিকে এখনো গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি বলে জানান তিনি।

মন্তব্য পড়ুন 0