default-image

কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলায় কৃষক ছিদ্দিক মিয়া (৩৮) হত্যা মামলায় একজনকে মৃত্যুদণ্ড ও পাঁচজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে জেলার প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আবদুর রহিম এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি হলেন বড়মাইপাড়া গ্রামের জজ মিয়ার ছেলে মো. জুয়েল মিয়া (৩৫)। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন মো. মাহবুব হাসান, মো. জজ মিয়া, মো. রহিমা খাতুন, মো. সাইফুল ইসলাম ও কাকন মিয়া। রায় ঘোষণার সময় তিনজন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকি দুজন মো. সাইফুল ইসলাম ও কাকন মিয়া পলাতক।

বিজ্ঞাপন

মামলার নথি ও আদালত-সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২২ জানুয়ারি বিকেলে বাজিতপুর উপজেলার বড়মাইপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সংলগ্ন রাস্তায় শৌচাগার নির্মাণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিরোধের সৃষ্টি হয়। সেই বিরোধের জেরে আসামিরা ছিদ্দিককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। প্রথমে তাঁকে জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নেওয়ার পথে রাস্তায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত ছিদ্দিকের ভাই মানিকুজ্জামান বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে বাজিতপুর থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন আবু সাইদ ইমাম ও আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অশোক সরকার।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন