কিশোরগঞ্জ সদরে ব্যাটারিচালিত রিকশা ছিনতাইয়ে বাধা দেওয়ায় চালক খুন হয়েছেন। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় অভিযুক্ত হিসেবে শামীম মিয়া (২৫) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদরের মহিনন্দ ইউনিয়নের আগপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত চালকের নাম মানিক মিয়া (৫০)। তিনি সদরের কাশোরারচর দক্ষিণপাড়া এলাকার বাসিন্দা। হত্যার অভিযোগে আটক শামীম সদরের মাইজখাপন ইউনিয়নের চৌধুরীহাটি গ্রামের আবদুর রশিদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জ শহরতলির শোলাকিয়া গাছবাজার এলাকা থেকে সদরের জালালপুর বাজারে যাওয়ার কথা বলে শামীম রিকশায় ওঠেন। প্রায় আধা ঘণ্টা পর কাশোরারচর চৌরাস্তার মোড়ে পৌঁছালে রাস্তা নিরিবিলি থাকায় রিকশাচালক মানিক মিয়া সামনে যেতে রাজি হননি। এ সময় যাত্রীবেশী দুর্বৃত্ত শামীমের পীড়াপীড়িতে চালক যেতে রাজি হন।

বিজ্ঞাপন

সেখান থেকে আধা কিলোমিটার দূরে নরসুন্দা নদীর পাড়ের আগপাড়া এলাকায় পৌঁছালে চালক মানিকের দুই হাঁটু ও ঊরুতে ছুরিকাঘাত করেন শামীম। রিকশা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টার সময় বাধা দিলে চালকের বুকের বাঁ পাশে ছুরিকাঘাত করা হয়। চালকের চিৎকারে আশপাশের কয়েকজন এগিয়ে এলে শামীম পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। স্থানীয় লোকজন তাঁকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে শামীমকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

এদিকে ছুরিকাঘাতে আহত মানিককে স্থানীয় লোকজন সদর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হয়। পরে তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। হাসপাতালে পৌঁছালে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুবকর সিদ্দিক বলেন, এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আটক শামীমকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানোর ব্যবস্থা হচ্ছে। মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন