বিজ্ঞাপন

সালাউদ্দিন আরও জানান, মমিন দফাদার বেশ কিছুদিন ধরে ঋণের টাকা না দিয়ে ঘোরাচ্ছিলেন। এদিকে লাল্টুর সন্ধান না পেয়ে ব্যাংকের লোকজন ও পরিবারের সদস্যরা তার খোঁজে রাতে ফিলিপনগর গ্রামে যান। এ সময় তাঁরা লাল্টুর ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি মমিনের বাড়ির সামনে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তাঁরা ওই বাড়ির শৌচাগারে লাল্টুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল ইসলাম জানান, ঋণের কিস্তি আদায় নিয়ে এ খুনের ঘটনা বলে তাঁরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন। ঘটনার পর থেকে মমিন সপরিবার পলাতক। তাঁকে আটক করতে ইতিমধ্যে অভিযান শুরু হয়েছে। মমিন দফাদারের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর নানা অভিযোগ রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন