default-image

শেরপুরে একটি কুকুরের কামড়ে ২৩ জন আহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলা সদরের কুসুমহাটি বাজার, পূর্বশেরী, পশ্চিমশেরী ও কসবা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। কুকুরের কামড়ে আহত ব্যক্তিরা জেলা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

ভুক্তভোগী ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, কুকুরটি কারও পায়ে, কারও হাতে, পেটে, পিঠে অর্থাৎ যাকে যেভাবে পেয়েছে, কামড়িয়েছে। কারও কারও কামড়ানো স্থানে মাংস ছিঁড়ে গেছে। কুকুরটি ধরতে স্থানীয় লোকজন চেষ্টা চালালেও দ্রুত স্থান পরিবর্তন করায় ধরা সম্ভব হয়নি।

জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. খাইরুল কবির প্রথম আলোকে বলেন, একটি পাগলা কুকুরের কামড়ে হাসপাতালে আসা ২৩ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা ও জলাতঙ্ক প্রতিষেধক (ভ্যাকসিন) দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শেরপুর পৌরসভার মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া বলেন, উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে কুকুর নিধন করা যাচ্ছে না। ফলে সম্প্রতি শহরে কুকুরের উপদ্রব বেড়ে গেছে। ২৩ জনকে কামড়ানো পাগলা কুকুরটি ধরতে পৌরসভার কনজারভেনসি শাখাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পাগলা কুকুরটি ধরা গেলে জনস্বার্থে সেটিকে মেরে ফেলা হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন