default-image

কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার ভাওরখোলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. ফারুক সরকার আব্বাসীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। হত্যা ও অস্ত্র মামলার প্রধান আসামি হওয়ায় স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় এ সিদ্বান্ত নিয়েছে।

১৩ এপ্রিল স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব মো. আবুজাফর রিপন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে আব্বাসীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। মেঘনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রবীর কুমার রায় ইউপি চেয়ারম্যান মো. ফারুক সরকার আব্বাসীর বরখাস্তের চিঠিপ্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মেঘনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল মজিদ বলেন, গত ৩১ মার্চ বুধবার রাতে রাজধানীর পূর্ব রায়েরবাজার এলাকা থেকে কুমিল্লা জেলা পুলিশের একটি দল মো. ফারুক সরকার আব্বাসীকে গ্রেপ্তার করে। তাঁকে কুমিল্লা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

১৯৯৮ সালে চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরী হত্যার মধ্য দিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন ফারুক সরকার। এরপর একসঙ্গে তিনজনকে হত্যাসহ চারটি হত্যার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। এ ছাড়া রয়েছে হত্যাচেষ্টা, হামলা, দখল, চাঁদাবাজির বিস্তর অভিযোগ।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন