default-image

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য কুমিল্লার ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজে চালু হলো করোনা ইউনিট। আজ বুধবার দুপুরে হাসপাতালের পঞ্চম তলায় ২০ শয্যার ওই করোনা ইউনিটের উদ্বোধন করেন জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ও কুমিল্লা-৬ (আদর্শ সদর, সিটি করপোরেশন ও সেনানিবাস) আসনের সাংসদ আ ক ম বাহাউদ্দিন। এর মধ্য দিয়ে কুমিল্লায় একমাত্র বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হিসেবে ইস্টার্ন এই সেবা চালু করল।

মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দুপুর ১২টায় কলেজের হলরুমে অধ্যক্ষ মো. কলিম উল্যাহর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ও কুমিল্লা-৬ আসনের সাংসদ আ ক ম বাহাউদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন কলেজের চেয়ারম্যান শাহ মো. সেলিম, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তফা কামাল আজাদ, জেলা সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসাইন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) কুমিল্লা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. আতাউর রহমান, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) কুমিল্লা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোরশেদুল আলম ও কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহান সরকার।

এর মধ্য দিয়ে কুমিল্লায় একমাত্র বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হিসেবে ইস্টার্ন এই সেবা চালু করল।
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে কলেজের চেয়ারম্যান শাহ মো. সেলিম বলেন, ‘গত শনিবার জেলা করোনা প্রতিরোধবিষয়ক কমিটি কুমিল্লার তিনটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজের সঙ্গে সভা করে। ওই সভায় তিনটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজকে করোনা রোগীদের সেবা দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আমরা ২০ শয্যার করোনা ইউনিট চালু করেছি। শিগগিরই আরও ৩০ শয্যার করোনা আইসোলেশন সেন্টার ও আইসিইউ চালু করা হবে। রোগীরা এখানে দ্রুত এসে সেবা নিতে পারবেন।’

সাংসদ আ ক ম বাহাউদ্দিন বলেন, ভালো পরিবেশে এখানে করোনা রোগীরা সেবা নিতে পারবেন। কুমিল্লায় সবার আগে ইস্টার্ন মেডিকেল কলেজ করোনা রোগীদের সেবায় এগিয়ে এল।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন