default-image

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে আজ সোমবার কুমিল্লায় মারা গেছেন আরও চারজন। তাঁরা সবাই পুরুষ। এর মধ্যে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন এলাকায় ৪৫ বছরের একজন, নাঙ্গলকোট উপজেলার ৮০ বছরের একজন, চান্দিনা ও বুড়িচং উপজেলার ৫০ বছরের একজন করে রয়েছেন।

আজ সোমবার বিকেলে জেলা করোনাবিষয়ক ফোকাল পারসন ও কুমিল্লার ডেপুটি সিভিল সার্জন মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এ নিয়ে জেলায় করোনায় মৃত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়াল ৩২৪। এর আগে গত শনিবার এক দিনে মারা গেছেন সাতজন।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে, সোমবার কুমিল্লা জেলায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৮২ জন। এর মধ্যে সিটি করপোরেশন এলাকায় ২৬ জন রয়েছেন। এ ছাড়া আদর্শ সদর ও দাউদকান্দিতে নয়জন করে, দেবীদ্বারে সাতজন, বুড়িচংয়ে ছয়জন, মুরাদনগর ও লাকসামে পাঁচজন করে, চান্দিনায় চারজন, হোমনায় তিনজন, নাঙ্গলকোট ও মেঘনায় দুজন করে এবং বরুড়া, তিতাস, সদর দক্ষিণ ও ব্রাহ্মণপাড়ায় একজন করে শনাক্ত হন।

কুমিল্লা জেলায় এ পর্যন্ত মোট করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৮২৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৬৭ জন। মারা গেছেন ৩২৪ জন। গত বছরের ৭ এপ্রিল এই জেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে গত বছরের ১১ এপ্রিল।

জানতে চাইলে কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসাইন বলেন, যতটুকু জেনেছেন, কুমিল্লার হাটবাজারে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। সড়কে হাজার হাজার মানুষ। রোজার বাজার করতে দল বেঁধে মানুষ ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েছেন। এতে সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে। আগে বৃদ্ধ ও বেশি বয়সীদের আক্রান্ত ও মৃত্যুর ঘটনা বেশি ঘটত। এখন যুবকেরাও মারা যাচ্ছেন। মানুষকে সতর্ক হতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন