default-image

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসার জন্য স্থাপিত কুমিল্লা কোভিড-১৯ হাসপাতালে আজ বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় উপসর্গ নিয়ে আরও পাঁচজন মারা গেছেন। মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে চারজন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ও একজন করোনা ওয়ার্ডে মারা যান। তাঁদের একজন নারী ও চারজন পুরুষ। 

হাসপাতালের তথ্য শাখার সহকারী সার্জন মুক্তা রানী ভূঁইয়া আজ সকাল আটটা ৩৪ মিনিটে প্রথম আলোকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটায় হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে মারা গেছেন কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার ৪৯ বছরের এক ব্যক্তি। আইসিইউতে গতকাল বুধবার রাত ১১ টা ২০ মিনিটে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার ৬৪ বছরের একজন, রাত আটটায় মারা গেছেন আদর্শ সদর উপজেলার বলরামপুর এলাকার ৫২ বছরের একজন, সকাল ৭টা ২০ মিনিটে কুমিল্লা নগরের ঠাকুরপাড়া মদিনা মসজিদ এলাকার ২৮ বছরের এক যুবক এবং সকাল সাতটা ৫ মিনিটে দেবীদ্বার উপজেলার তালতলা গ্রামের ৮০ বছরের এক বৃদ্ধ মারা গেছেন।

হাসপাতালের তথ্য শাখা সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে কোভিড হাসপাতালে ১১৭ জন রোগী ভর্তি আছেন। এর মধ্যে কোভিড রোগী ৩৮ জন ও উপসর্গ নিয়ে আছেন ৭৯ জন। আজ বৃহস্পতিবার নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৩২ জন। এ হাসপাতালে গত ৩ জুন থেকে আজ পর্যন্ত ৮২৭ জন ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে সেবা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৫৪ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১৫৮ জন। এর মধ্যে করোনায় ২৬ জন এবং উপসর্গ নিয়ে ১৩২ জন।

হাসপাতালের পরিচালক চিকিৎসক মো. মুজিবুর রহমান বলেন, ‘চিকিৎসক এবং নার্সদের সকল চেষ্টার পরও করোনার উপসর্গ থাকা এই পাঁচ ব্যক্তিকে সারিয়ে তোলা সম্ভব হয়নি। ’

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন