নির্বাচন কমিশনের নয়টি নির্দেশনা হলো মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও দাখিলের সময় কোনো ধরনের মিছিল বা শোডাউন করা যাবে না; পাঁচজনের বেশি সমর্থক নিয়ে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও জমা দেওয়া যাবে না; প্রতীক বরাদ্দের আগে কোনো ধরনের প্রচারণা শুরু করা যাবে না; পথসভা ও ঘরোয়া সভা ছাড়া কোনো ধরনের জনসভা ও শোভাযাত্রা করা যাবে না; পোস্টার হতে হবে নির্ধারিত মাপের এবং সাদাকালো; পোস্টার ও লিফলেটে প্রার্থী নিজের ছবি ও প্রতীক ছাড়া অন্য কারও নাম, ছবি বা প্রতীক ছাপাতে পারবেন না (তবে দলীয় মনোনীত প্রার্থীর দলের প্রধানের ছবি ছাপানো যাবে)।

মেয়র প্রার্থী প্রত্যেক থানা এলাকায় সর্বোচ্চ দুটি ও কাউন্সিলর প্রার্থী সর্বোচ্চ একটি ক্যাম্প বা অফিস স্থাপন করতে পারবেন; নির্বাচনী প্রচারণায় কোনো ধরনের ফটক, তোরণ ও আলোকসজ্জা করা যাবে না; সিটি করপোরেশন (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালা–২০১৬–এর অন্যান্য বিধিবিধান অনুসরণ করে নির্বাচনী প্রচার–প্রচারণা চালাতে হবে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন, মনোনয়নপত্র সংগ্রহ থেকে শুরু করে প্রচারণা পর্যন্ত সব ধরনের নির্দেশনা দিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। এগুলো প্রার্থীদের মানতে হবে।

২০১১ সালের ১০ জুলাই কুমিল্লা সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০১২ সালের ৫ জানুয়ারি প্রথম ও ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ দ্বিতীয় দফা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন