বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সোহেল রানা প্রথম আলোকে বলেন, তিনি ও তাঁর স্ত্রী প্রথমবারের মতো বাবা–মা হলেন। এই পাঁচ সন্তানের মধ্যে চারটি মেয়ে ও একটি ছেলে।

সোহেল রানা আরও বলেন, ২০১৬ সালে তাঁদের বিয়ে হয়। চলতি বছর তাঁর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হন। ঝিনাইদহে একজন চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিতেন তিনি। গত শনিবার রাতে তাঁর স্ত্রীর প্রসবব্যথা শুরু হলে তাঁকে দ্রুত কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ একসঙ্গে তাঁদের পাঁচ সন্তানের জন্ম হয়।

হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডের জ্যেষ্ঠ নার্স রাবেয়া খাতুন প্রথম আলোকে বলেন, প্রথমে পরপর চারটি সন্তানের জন্ম দেন সাদিয়া খাতুন। পরে ছেলেসন্তানের জন্ম হয়। তাদের প্রত্যেকের ওজন গড়ে ৭৫০ থেকে ৮০০ গ্রাম। শিশুদের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাদের দ্রুত একই হাসপাতালের স্ক্যানু ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। পাঁচ নবজাতকের দুটিকে ইনকিউবেটরে রাখা হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, একসঙ্গে পাঁচ শিশুর জন্ম নেওয়ার ঘটনা এই হাসপাতালে এটিই প্রথম।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন