কুষ্টিয়ায় কোভিডে আক্রান্তের সংখ্যা দেড় হাজার ছাড়াল

বিজ্ঞাপন
default-image

কুষ্টিয়ায় কোভিডে আক্রান্তের দেড় হাজার ছাড়িয়েছে। তিন মাস ১০ দিনে এত রোগী শনাক্ত হওয়ায় জেলাবাসীর মনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গতকাল বুধবারও জেলায় ৪৮ জনের শরীরে কোভিড-১৯ পজিটিভ শনাক্ত হয়। কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে কুষ্টিয়ার ১৭৯ টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পেয়ে গতকাল রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় এ তথ্য জানায়।

সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় ৩২ জন, দৌলতপুরে ৪ জন, ভেড়ামারায় ৩ জন, মিরপুরে ৬ জন ও কুমারখালীতে ৩ জন। তাঁদের মধ্যে পুরুষ ৩৭ জন ও নারী ১১ জন। কুষ্টিয়া জেলায় গতকাল রাত পর্যন্ত কোভিড রোগী শনাক্ত হয় ১ হাজার ৫২৮ জন ।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র আরও জানায়, জেলায় প্রথম ২২ এপ্রিল দুজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর গত ঈদুল ফিতরের আগ পর্যন্ত মাত্র ৩৪ জনের শরীরে এ ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়। কিন্তু ঈদের পর থেকে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকে। তবে এই জুলাই মাসে সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে এবং মৃত্যুও হয়েছে সবচেয়ে বেশি।

জেলায় এ পর্যন্ত ৯ হাজার ৯২৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১ হাজার ৫২৮ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া গেছে। মারা গেছেন ৩৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ হাজার ২২ জন। সবচেয়ে বেশি ৮৯১ জন রোগী পাওয়া গেছে সদর উপজেলায়। এখানে মৃত্যুও বেশি, ২৪ জন। সদর উপজেলা ৮৫ শতাংশ রোগীই কুষ্টিয়া পৌরসভার বাসিন্দা। বলা যায়, কুষ্টিয়ায় কোভিড-১৯ হটস্পট (অতি ঝুঁকিপূর্ণ) এই পৌরসভা।

স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক ও কর্মকর্তারা বলছেন, ঈদুল আজহার পর রোগীর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। এবং কুষ্টিয়া পৌরসভায় আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে। এ জন্য কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে এখনই দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন