বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গড়াই নদসংলগ্ন থানাপাড়ার পুরোনো বাঁধে স্বামী রতনের বাড়িতে বসবাস করতেন আকলিমা খাতুন। স্বামীর বাড়ির পাশেই বাবা মাজেদের বাড়ি। স্বামীর বাড়িতে সংস্কারকাজ চলায় গতকাল মঙ্গলবার রাতে বাবার বাড়িতে শিশুসন্তানকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন আকলিমা। আকলিমার স্বামী তাঁর নিজের বাড়িতে ছিলেন। আজ ভোরে লোকজন দেখেন, আকলিমার লাশ ঝুলছে। পাশে বিছানায় শিশু জিমের নিথর দেহ পড়ে আছে। স্থানীয় লোকজন পুলিশকে জানালে তারা মা ও শিশুসন্তানের লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

আকলিমার পরিবারের লোকজনের দাবি, তিনি দীর্ঘদিন ধরে মানসিকভাবে অসুস্থ। তাঁর চিকিৎসা চলছিল। তাঁর প্রথম পক্ষের সংসারে দুটি ছেলেসন্তান আছে।

পুলিশের ধারণা, আকলিমা তাঁর ছেলেকে শ্বাসরোধে হত্যার পর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

কুষ্টিয়া মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বলেন, থানাপাড়া বাঁধের একটি বাড়ি থেকে মা ও শিশুসন্তানের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আকলিমা মানসিক রোগী ছিলেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে তদন্ত চলছে। সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন