বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, কুষ্টিয়া–ঝিনাইদহ মহাসড়কের পাশে বিত্তিপাড়া বাজার এলাকায় বাঁশের তৈজস তৈরির কারিগরদের বেশ কয়েকটি পরিবার বসবাস করেন। কয়েক দিন ধরেই সেখানে বাসকারী প্রশান্ত কুমারের স্ত্রীর সঙ্গে তাঁর ভাই আনন্দ কুমারের স্ত্রীর ঝগড়া চলছিল। সোমবার বিকেলে এর জেরে দুই ভাইয়ের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এ সময় আনন্দের সঙ্গে তাঁর ছেলে সত্য কুমার যোগ দেন।

একপর্যায়ে বাঁশ কাটার ধারালো দা দিয়ে প্রশান্ত কুমারকে আঘাত করেন সত্য কুমার। গুরুতর আহত হলে তাঁকে দ্রুত কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য একই হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, স্থানীয় ব্যক্তিরা অভিযোগ করেছেন, ভাতিজা সত্য কুমারের দায়ের আঘাতে চাচা প্রশান্ত কুমার নিহত হন। তাঁকে আটক করতে অভিযান চলছে। থানায় হত্যা মামলা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন