default-image

কুষ্টিয়ায় প্রথম টিকা নিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফ। আজ রোববার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে তাঁকে টিকা দেওয়া হয়। তাঁকে টিকা দেওয়ার মধ্য দিয়ে কুষ্টিয়া জেলায় টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

সাংসদ হানিফের পর কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জ, পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত, জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ এস এম মুসতানজীদসহ কয়েকজন টিকা নেন।

টিকা নেওয়ার পর তাঁদের আধা ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এরপর আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুব উল আলম হানিফ বক্তব্য দেন। হানিফ বলেন, ‘আমি তো হাসতে হাসতে টিকা নিলাম। টিকা যে নিলাম, সেটা টেরই পেলাম না। বসে আছি, কোনো সমস্যা হচ্ছে না।’
টিকা নিয়ে একটি গোষ্ঠী প্রথম থেকেই অপপ্রচার চালাচ্ছে উল্লেখ করে হানিফ বলেন, ‘জেলাবাসী, তথা দেশবাসীকে বলব, সরকারি নির্দেশনা মেনে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে টিকা নিন এবং টিকা নিতে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করুন।’

বেলা দুইটা পর্যন্ত জেনারেল হাসপাতালে অন্তত ৮০ জন টিকা নেন। এই কেন্দ্র ছাড়াও জেলার পাঁচটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। তবে প্রথম দিন পুলিশ লাইনস হাসপাতালে টিকা কেন্দ্রে কোনো টিকা কার্যক্রম হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিভিল সার্জন এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আগামীকাল সোমবার থেকে পুলিশ লাইনস হাসপাতালে টিকা দেওয়া শুরু হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন