বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত বছরও কুয়াকাটা সৈকত এলাকায় সাত থেকে আটটি মৃত ডলফিন ভেসে আসে বলে জানান কলাপাড়া উপজেলার জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা।

সমুদ্রের নীল অর্থনীতি, জীববৈচিত্র্য রক্ষা ও উপকূলের পরিবেশ-প্রতিবেশ নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ড ফিসের এনহ্যান্সড কোস্টাল ফিশারিজ ইন বাংলাদেশ (ইকোফিশ-২) অ্যাকটিভিটির পটুয়াখালী জেলার সহযোগী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি বলেন, মৃত ডলফিনটির অন্ত্র, জিব ও মাংসপেশি সংগ্রহ করে শীতাতপনিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থায় রাখা হয়েছে। আজই তা ঢাকায় বন বিভাগের প্রধান কার্যালয়ে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক প্রথম আলোকে বলেন, মৃত ডলফিনটির দেহের প্রয়োজনীয় অংশ পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করার পর ডলফিনটি মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন