কুয়াকাটা ডলফিন রক্ষা কমিটির দলনেতা রুম্মান ইমতিয়াজ বলেন, গত জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত কুয়াকাটা সৈকতে পাঁচটি মৃত ডলফিন ভেসে এল। এর আগে ২০২০ সালে ১৮টি এবং ২০২১ সালে ২৪টি মৃত ডলফিন ভেসে এসেছে এই সৈকতে। তা ছাড়া গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে কুয়াকাটায় চারটি মৃত ওলিভ রেডলি কচ্ছপও ভেসে এসেছে। মৃত ডলফিনটি মাটিচাপা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

উপকূলের জীববৈচিত্র্য, পরিবেশ-প্রতিবেশ এবং সমুদ্রের নীল অর্থনীতি নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ড ফিশের ইকোফিশ-২ প্রকল্পের পটুয়াখালী জেলার সহযোগী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে ডলফিনটি তিন-চার দিন আগে মারা গেছে। এর শরীর পচে-গলে গেছে। যে কারণে এটি উদ্ধার করার পরই দ্রুত মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে। এটি কোনো জেলের জালে আটকা পড়েছিল। কারণ, এর শরীরে প্যাঁচানো জালের অংশবিশেষ পাওয়া গেছে। জাল থেকে ডলফিনটি সঠিকভাবে ছাড়াতে পারলে হয়তো মৃত্যু হতো না।