default-image

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ঢাকা জেলা দক্ষিণ গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অজ্ঞাতপরিচয় এক যুবক (২০) নিহত হয়েছেন। নিহতের পরনে কালো ফুলহাতা গেঞ্জি ও কালো রঙের জিনসের প্যান্ট ছিল। পুলিশের ভাষ্যমতে, নিহত যুবক ডাকাত দলের সদস্য। ডিবি পুলিশ ও ডাকাতদের পাল্টাপাল্টি গুলি বিনিময়ের সময় ওই ডাকাত সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।

গতকাল রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন করেরগাঁও এলাকায় রতনের খামারের কাছে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

পুলিশের ভাষ্য, ডাকাত ও ডিবি পুলিশের সদস্যদের সঙ্গে গুলিবিনিময়ের সময় ডাকাত দলের এক সদস্য গুলিবিদ্ধ হন। তাঁকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাক্রাতুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের আব্দুল্লাহপুর এলাকায় টহলের সময় তিনি সংবাদ পান, রতনের খামার এলাকায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় অজ্ঞাতনামা এক যুবক পড়ে আছেন। তাঁকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক যুবককে মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। তিনি আরও বলেন, যুবকের বুকের বাম পাশে একটি গুলির চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি রামদা ও লাঠিসোঁটা উদ্ধার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কেরানীগঞ্জ সার্কেল) শাহাবুদ্দীন কবির প্রথম আলোকে বলেন, রোববার রাত সাড়ে আটটার দিকে আব্দুল্লাহপুর করেরগাঁও এলাকার বাসিন্দা ইসমাইল হোসেন মোটরসাইকেলযোগে তাঁর বাড়ি যাচ্ছিলেন। তিনি করেরগাঁও এলাকার রতনের খামারের কাছে ময়লার ভাগাড়ের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার ওপর গাছ ফেলে পথরোধ করা হয়। এ সময় তিনি মোটরসাইকেলটি থামালে সাত-আটজন ডাকাত তাঁকে ঘিরে ফেলে। তারা ইসমাইল হোসেনের মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে তাঁর আর্তচিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসেন। একপর্যায়ে সেখানে টহলরত ডিবি পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ডাকাত দল ডিবি পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে ডিবি পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। ডাকাত ও ডিবি পুলিশের সদস্যদের সঙ্গে গুলিবিনিময়ের সময় ডাকাত দলের এক সদস্য গুলিবিদ্ধ হন। তাঁকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন