কোভিডের উপসর্গ নিয়ে চলন্ত বাসে বৃদ্ধের মৃত্যু

বিজ্ঞাপন
default-image

সিলেট থেকে বাড়ি ফেরার পথে কোভিড-১৯–এর (করোনা) উপসর্গ নিয়ে চলন্ত বাসে এক ব্যক্তি (৬৫) মারা গেছেন। গতকাল সোমবার রাতে সিলেট-পঞ্চগড়গামী একটি বাসে এই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। আজ মঙ্গলবার সকালে তাঁর মরদেহ জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার মুন্দাইল গ্রামের নিজ বাড়িতে আনা হয়।

মৃত ব্যক্তির ছেলে বলেন, ‘আমার বাবার অ্যাজমা রোগী ছিলেন। তিনি সিলেটে একটি এনার্জি কোম্পানিতে নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করতেন। আমার বাবা সোমবার নিজেই রুমা পরিবহনের বাসের টিকিট ক্রয় করে বাসে উঠেছিলেন। বাসে ওঠার পর শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। ভৈরব অতিক্রম করার পর চলন্ত বাসে আমার বাবার মৃত্যু হয়।’

ওই ব্যক্তি আরও বলেন, ‘বাবার মুঠোফোন থেকে বাসচালক নম্বর সংগ্রহ করে সিলেটের কোম্পানির ঠিকানায় ফোন করে ঘটনাটি জানায়। সেখান থেকে আমার কাছে কল করা হয়। আজ ভোরে আমার বাবার মরদেহ বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এলাকায় নামিয়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে আমরা মরদেহ বাসায় নিয়ে এসেছি। কোভিডের উপসর্গ থাকায় স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন নমুনা সংগ্রহ করেছেন। দাফনের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে সাত সদস্যের একটি দলও এসেছে।’

জয়পুরহাটের সিভিল সার্জন সেলিম মিঞা বলেন, ওই ব্যক্তি কোভিড-১৯–এর উপসর্গ নিয়ে চলন্ত বাসে মারা গেছেন। নিয়মানুযায়ী লাশ দাফনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির নমুনা নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন