default-image

করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হয়ে এবার মারা গেলেন বগুড়া জেলা বিএনপির সদস্য ও বগুড়া সদর থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি ওমর ফারুক খান (৫২)। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে রাজধানীর মহাখালীর বেসরকারি ইমপালস জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

বগুড়া জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনের সাংসদ গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ (জি এম সিরাজ) ওমর ফারুক খানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ প্রথম আলোকে বলেন, ওমর ফারুক খান বগুড়া শহরের মালতিনগর এলাকায় সপরিবারে বসবাস করতেন। প্রায় দুই সপ্তাহ আগে নমুনা পরীক্ষায় তিনি কোভিড ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হন। প্রথম দিকে বাসাতেই তিনি কয়েক দিন আইসোলেশনে ছিলেন। অবস্থার অবনতি ঘটলে পাঁচ দিন আগে তাঁকে বগুড়ার মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নেওয়া হয়। তাঁর শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা অস্বাভাবিক কমে যাওয়ায় অবস্থা খারাপের দিকে গেলে চার দিন আগে তাঁকে বগুড়া থেকে রাজধানীর মহাখালীর বেসরকারি ইমপালস জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী তাঁকে প্লাজমা থেরাপিও দেওয়া হয়। কিন্তু আজ অবস্থার আরও অবনতি ঘটলে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ওমর ফারুক খানের গ্রামের বাড়ি বগুড়া সদর উপজেলার শেখের কোলা ইউনিয়নের তেলিহারা গ্রামে। বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত থাকার পাশাপাশি ওমর ফারুক খান একজন ব্যবসায়ী নেতাও ছিলেন। তিনি বগুড়া জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি শহরের বিআরটিসি শপিং কমপ্লেক্স ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন