default-image

কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে রাজশাহীতে মারা যাওয়া পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক ( এএসআই) আবুল কালামের (৩৫) মরদেহ গতকাল বুধবার রাত সাড়ে নয়টায় বগুড়ার শেরপুর পৌর শহরের হাসপাতাল রোড গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এর আগে স্থানীয় দুবলাগাড়ী ঈদগাহ মাঠে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

গতকাল রাত আটটায় রাজশাহী থেকে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আবুল কালামের লাশ আনা হয় গ্রামের ওই ঈদগাহ মাঠে। দূর থেকে লাশ দেখে তাঁর স্বজন ও প্রতিবেশীরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।

জানাজায় বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঁঞা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজীউর রহমান, শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

কোভিডে মারা যাওয়া আবুল কালাম শেরপুর উপজেলার কুসুম্বি ইউনিয়নের বণিক পাড়া গ্রামের কাশেম সরদারের ছেলে। তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন। তিনি পরিবার নিয়ে রাজশাহী নগরের তেরখাদিয়া এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

আবুল কালাম পুলিশের এএসআই হিসেবে রাজশাহী জেলা জজ আদালতে দায়িত্বরত ছিলেন। গত ২২ জুন নমুনা পরীক্ষায় তাঁর শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এরপর তাঁকে বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে নেওয়া হয় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে। সেখানেই গতকাল বেলা একটায় তিনি মারা যান।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন