বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জিয়াউল হককে গ্রেপ্তার করা হয় বসুরহাট পৌরসভার একটি বেসরকারি হাসপাতালের সামনে থেকে। আর মাইনকে মুছাপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জেলা পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলাম দুজনকে গ্রেপ্তারের তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, জিয়াউল হকের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় বিস্ফোরক আইনে একাধিক মামলা আছে। আর মাইনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে দুটিসহ মোট তিনটি মামলা আছে। এসব মামলায় তাঁদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন