বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, শাহাদাত হোসেন কোম্পানীগঞ্জ থানা এলাকায় বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, ত্রাস সৃষ্টিসহ বিস্ফোরক দ্রব্য ব্যবহার করে এবং হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মানুষকে পঙ্গু করে দেন। এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের অংশ হিসেবে রোববার দুপুরের দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, শাহাদাত হোসেনসহ তাঁর সহযোগীরা গত সাত থেকে আট মাসে কাদের মির্জার প্রতিপক্ষের ওপর যতগুলো হামলা চালিয়েছে, সেখানে তাঁরা হাতুড়ি ব্যবহার করেছেন।

জানতে চাইলে জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, গ্রেপ্তার শাহদাত হোসেন দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিলেন। তিনি কোম্পানীগঞ্জ থানা এলাকায় একের পর এক অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে আসছেন। রোববার গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম প্রথম আলোকে জানান, কাদের মির্জার অনুসারী শাহাদাত হোসেনকে গ্রেপ্তারের পর ডিবি কার্যালয়ে এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আগামীকাল সোমবার সকালে তাঁকে আদালতে পাঠানো হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন