বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কোলা ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহীনুর ইসলাম (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী আল মাহমুদুল হাসান (মোটরসাইকেল), এইচ এম আসাদুজ্জামান (রজনীগন্ধা), মোছা. সেলিনা মির্জা (কাপ-পিরিচ), আসাদুর রহমান চৌধুরী (আনারস), মো. খায়রুল ইসলাম (দুটি পাতা), মো. জাফর ইকবাল (টেবিল ফ্যান), মো. ফজলে রাব্বী ফারুকী (ঘোড়া), মো. ফয়সল ওয়ালিদ (চশমা), মো. মেহেদী মাসুদ (অটোরিকশা), শফিকুল ইসলাম (টেলিফোন) ও মো. হায়দার আলী (ঢোল)। এই ইউনিয়নে মোট ভোটার ২০ হাজার ১৮২ জন।

কোলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, পুরো ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদপ্রার্থীদের পোস্টার ছেয়ে গেছে। এসব প্রার্থীদের মোড়ে মোড়ে নির্বাচনী ক্যাম্প রয়েছে। এসব নির্বাচনী ক্যাম্পে কর্মী-সমর্থকেরা আড্ডা দিচ্ছেন।

কোলা ইউনিয়নের ৩০ থেকে ৩৫ জন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বেলা দুইটার পর নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর কথা থাকলেও প্রার্থীদের অনেকেই সকাল ১০টার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। প্রার্থীরা সবাই নানা উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করছেন। সন্ধ্যার পর থেকে প্রতিটি চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদপ্রার্থীদের নির্বাচনী ক্যাম্পে জমজমাট চায়ের আড্ডা বসছে। এখন পর্যন্ত নির্বাচনের পরিবেশ উৎসবমুখর রয়েছে। তবে প্রার্থী বেশি হওয়ায় কে চেয়ারম্যান পদে জয়লাভ করবেন, তা অনুমান করা যাচ্ছে না।

রিটার্নিং ও উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা এ বি এম শহিদুল আলম আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, তৃতীয় ধাপে বদলগাছির আট ইউপিতে নির্বাচন হবে। এর মধ্যে কোলা ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সর্বোচ্চ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখন পর্যন্ত কোলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের কেউ গুরুতর কোনো অভিযোগ করেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন