বিএনপির উদ্দেশে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আপনাদের জনসমর্থন নেই। রাজনীতির নামে, গণতন্ত্রের নামে আন্দোলন করে, জ্বালাও-পোড়াও আর হরতাল করে আপনারা ক্ষমতায় যেতে পারবেন না। ক্ষমতায় যেতে চাইলে আপনাদেরকে গরিব-দুঃখী মানুষের পাশে থাকতে হবে, তাদের সহযোগিতা করতে হবে। জনগণের সমর্থন না পেলে কোনো দিন ক্ষমতায় যেতে পারবেন না।’

বিএনপিকে গঠনমূলক সমালোচনা করার আহ্বান জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জনগণের জন্য রাজনীতি ও গঠনমূলক সমালোচনা করেন। কিন্তু রাজনীতির নামে, আন্দোলনের নামে গাড়িতে আগুন দেবেন, মানুষকে পুড়িয়ে মারবেন, হরতাল করবেন, রেললাইন উপড়ে ফেলবেন, সেটি আমরা করতে দেব না। এটি গণতন্ত্র নয়, রাজনীতি নয়। আন্দোলন করে অতীতে আপনারা সফল হননি, ভবিষ্যতেও কখনো সফল হবেন না।

আব্দুর রাজ্জাক বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে দ্রব্যমূল্য অনেক বেশি উল্লেখ করে বলেন, বিএনপির আমলে দেশে সার পাওয়া যেত না। চালের দাম বেশি ছিল, মানুষ চাল কিনতে পারত না। প্রতিবছর উত্তরবঙ্গে মঙ্গা হতো। মানুষ তিন-চার দিন পর্যন্ত না খেয়ে থাকত, না খেয়ে অনেক মানুষ মারাও যেত। সেখানে আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের কৃষি উন্নয়ন ও ব্যাপক খাদ্যসহায়তার ফলে দেশে খাওয়ার কোনো কষ্ট নেই, মঙ্গা নেই; বরং সব মানুষ খাবার পায়। তারপরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদ উপলক্ষে গরিব ও দুস্থ মানুষকে চাল দিচ্ছেন, যাতে কোনোক্রমেই একটি মানুষও যেন খাদ্যের কষ্ট না করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে ভালোবাসেন, মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত আছেন।

অনুষ্ঠানে ধনবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনার রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসলাম হোসাইন, পৌর মেয়র মনিরুজ্জামানসহ স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। পরে দুপুরে কৃষিমন্ত্রী মধুপুর পৌর ভবনে মধুপুর উপজেলার অতিদরিদ্র, অসহায় ও দুস্থ পরিবারের মধ্যে ভিজিএফের চাল বিতরণ করেন। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান ছরোয়ার আলম খান, ইউএনও শামীমা ইয়াসমিন, পৌর মেয়র সিদ্দিক হোসেন খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার শফিউদ্দিন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন