বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মাহাবুব উল আলম হানিফ বলেন, খালেদা জিয়া আইনি লড়াইয়ে মুক্ত হতে ব্যর্থ হয়েছেন। পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতা দেখিয়ে নির্বাহী ক্ষমতাবলে তাঁর দণ্ড স্থগিত করেছেন। তবে বিএনপি খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে পুঁজি করে আন্দোলনের নামে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। খালেদা জিয়ার চিকিৎসা তাঁদের উদ্দেশ্য নয়, তাঁরা এটাকে পুঁজি করে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায়। কয়েদির দণ্ড মওকুফ করতে রাষ্ট্রপতির সাংবিধানিক ক্ষমতা আছে। কিন্তু আজ পর্যন্ত বিএনপি ক্ষমা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে কোনো আবেদন করেননি।

এদিকে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, মুরাদের নিম্ন রুচির কথোপকথনের বিষয়ে জানতে পেরেই প্রধানমন্ত্রী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছেন। জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের পদ থেকেও তাঁকে বহিষ্কারের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় তাঁর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তৃণমূলের বর্ধিত সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুকের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক ও লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য নুরউদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত) আবু সাঈদ আল মাহমুদ, কৃষি ও সমবায়বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সাংসদ আনোয়ার হোসেন খান প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন