নিহত ব্যক্তিরা হলেন সদরের শালবন গ্রামের বাসিন্দা ইটভাটাশ্রমিক মো. আলমগীর (২৬) এবং গঞ্জপাড়ার নুর আলমের শিশুপুত্র মোহাম্মদ শামীম (৭)।

পুলিশ ও স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দুপুরে শিশু শামীম চেঙ্গী নদীর পাড়ে খেলছিল। হঠাৎ সে নদীর পানিতে পড়ে যায়। তা দেখে শিশুটিকে বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপ দেন তীরে থাকা দুই যুবক। তাঁদের মধ্যে একজন (নাম জানা যায়নি) শিশুটিকে নিয়ে তীরে উঠতে পারলেও অপরজন (আলমগীর) পানিতে ডুবে মারা যান।

পরে স্থানীয় বাসিন্দারা আলমগীর ও ওই শিশুকে উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন। আলমগীর সাঁতার জানতেন না বলে নিশ্চিত করেছে তাঁর পরিবার।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন