default-image

খুলনা জেলায় কোভিড রোগীদের জন্য বিশেষ অনলাইনভিত্তিক সেবা কার্যক্রম চালু করেছে খুলনা জেলা প্রশাসন। এতে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের তথ্য সংরক্ষণ করে রাখা হবে। প্রয়োজন অনুযায়ী ওই রোগীকে চিকিৎসাসেবা ও হাসপাতালে নেওয়ার ব্যবস্থা করবেন সংশ্লিষ্টরা।

শুধু তা–ই নয়, ওই পরিবারকে দুই সপ্তাহের খাবারের ব্যবস্থা করবে জেলা প্রশাসন। এই উদ্যোগের নাম দেওয়া হয়েছে ‘হোম টু হোম অ্যাসিস্ট্যান্ট টু কোভিড-১৯ পেশেন্ট থ্রু ডিজিটাল সিস্টেম’। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ওই সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

ওই কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন খুলনার ১৫ জনের মতো বিশিষ্ট চিকিৎসক। দলের প্রধান হিসেবে আছেন খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ চিকিৎসক মেহেদী নেওয়াজ। ওই চিকিৎসক দলের সদস্যরা মুঠোফোনে এসএমএস ও ই-মেইলের মাধ্যমে রোগীদের সার্বিক পর্যবেক্ষণসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে যাবেন। প্রয়োজন মনে করলে রোগীকে হাসপাতালে স্থানান্তরের জন্য অ্যাম্বুলেন্স ও ট্রান্সপোর্ট সেবা দেওয়া হবে। এ ছাড়া কোভিডে আক্রান্ত ব্যক্তি মারা গেলে তাঁর দাফন বা সৎকারের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

করোনাভাইরাস এখন মহামারি আকার ধারণ করেছে। এমন পরিস্থিতিতে কোনো আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসাসেবা ও তাঁর পরিবারের খাবারের সহায়তা এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এতে রোগীর পরিবারের ওপর কিছুটা হলেও মানসিক চাপ কমবে।
মোহাম্মদ হেলাল, জেলা প্রশাসক, খুলনা

এই সেবা কার্যক্রম শুরুর কারণ হিসেবে খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, করোনাভাইরাস এখন মহামারি আকার ধারণ করেছে। এতে একদিকে মানুষের মধ্যে যেমন উদ্বেগ বাড়ছে, অন্যদিকে চিকিৎসাব্যবস্থা নিয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে কোনো আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসাসেবা ও তাঁর পরিবারের খাবারের সহায়তা এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এতে রোগীর পরিবারের ওপর কিছুটা হলেও মানসিক চাপ কমবে।

বিজ্ঞাপন

খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত ওই কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক। এ সময় খুলনা-২ আসনের সাংসদ সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন। খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনলাইনে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো. ইসমাইল হোসেন ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ।

অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র বলেন, মহামারি চলাকালে যত দিন প্রয়োজন, তত দিন এ কার্যক্রমের মাধ্যমে নাগরিকদের ঘরে বসে চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা হবে। সাহসিকতার সঙ্গে কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলা করতে হবে। অল্প বয়সী তরুণদের মধ্যরাতে যত্রতত্র চলাফেরা এবং মোটরসাইকেলে দুজন অথবা অতিরিক্ত যাত্রীদের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তি ঘরে বসে এ কার্যক্রমের আওতায় চিকিৎসাসেবা ও অন্যান্য মানবিক সহায়তা পেতে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য ০১৭৯৪৭০১৫৫৫, ০১৭৯৪৬১১৫৫৫, ০১৭০৯৩১৯৭৬৯ ও ০১৭৩০৩২৪৭৯৭ নম্বরে ফোন করে নিবন্ধন করতে পারবেন। ই–মেইলের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে হলে [email protected] ঠিকানায় যোগাযোগ করতে হবে। এ ছাড়া গুগল প্লে স্টোর থেকে ‘জরুরি সেবা—খুলনা’ অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিবন্ধন করা যাবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন