default-image

রোগীর স্বজনদের হামলায় এক চিকিৎসক নিহত হওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) খুলনা জেলা শাখার ডাকা অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি ৭২ ঘণ্টার জন্য স্থগিত করা হয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে এজাহারভুক্ত অন্য আসামিদের গ্রেপ্তার, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) প্রত্যাহার এবং মামলাটি দ্রুত বিচার আইনে না নেওয়া হলে আবারও কর্মবিরতি পালন করার হুমকি দিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

খুলনা প্রেসক্লাবে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে ওই ঘোষণা দেন বিএমএ খুলনা জেলা শাখার নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন খুলনা বিএমএর সভাপতি চিকিৎসক শেখ বাহারুল আলম। এ সময় খুলনা বিএমএর সাধারণ সম্পাদক চিকিৎসক মেহেদী নেওয়াজ, সহসভাপতি চিকিৎসক বঙ্গকমল বসু, সাংগঠনিক সম্পাদক চিকিৎসক মামুনুর রশীদ, প্রচার সম্পাদক চিকিৎসক সুমন রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে মেহেদী নেওয়াজ বলেন, সদর থানার ওসি ঘটনাটিকে গুরুত্বই দেননি। নিহত চিকিৎসক পরিবারের সদস্যরা থানায় অভিযোগ করতে গেলে সেটিকে প্রথমে তিনি আমলে নেননি। যেটি কোনোভাবেই বাঞ্ছনীয় ছিল না। তাঁর ওই অবহেলার কারণেই আসামিরা পালানোর সুযোগ পেয়েছেন। এই ওসিকে থানায় রেখে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সম্ভব নয়। এ কারণে তাঁকে প্রত্যাহার করতে হবে।

মেহেদী নেওয়াজ আরও বলেন, চিকিৎসক নিহত হওয়ার বিষয়টিকে পর্যালোচনা করে আসামিদের গ্রেপ্তার ও ওসির প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে কর্মবিরতি পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু প্রথম দিনেই এজাহারভুক্ত চার আসামির মধ্যে তিনজন গ্রেপ্তার হওয়ায় বিএমএ কর্মবিরতির সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে। তবে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ওই তিনটি দাবি মেনে না নেওয়া হলে আবারও কর্মবিরতিসহ আরও কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবেন চিকিৎসকেরা।
সংবাদ সম্মেলনের আগে খুলনা বিএমএ ভবনে এক জরুরি বৈঠক করেন চিকিৎসকনেতারা।

আরও পড়ুন:

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0