বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে ওই এলাকার বাসিন্দা সোহেলের ছোট ভাইদের সঙ্গে লিটনের কথা–কাটাকাটি থেকে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনা তখন স্থানীয়ভাবে মীমাংসা হয়ে যায়। পরে রাত ১১টার দিকে সোহেল মুঠোফোনে লিটন ও আমিনকে ডেকে নেয়। এ সময় তাঁরা লিটন ও আমিনকে এলোপাতাড়ি মারধর ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেন। তাৎক্ষণিকভাবে রক্তাক্ত অবস্থায় লিটন ও আমিনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে রাত দুইটার দিকে লিটন মারা যান। আমিন বর্তমানে চিকিৎসাধীন ও আশঙ্কামুক্ত।

ওসি কাজী মোস্তাক আহমেদ বলেন, সকালে ময়নাতদন্ত শেষে লিটনের লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। অভিযুক্তদের আটক করতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন