বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওই পুলিশ কর্মকর্তার নাম শেখ আবু বকর সিদ্দিক ও তাঁর স্ত্রীর নাম সুলতানা রাজিয়া। জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদক থেকে তাঁদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করা হয়েছিল। ওই মামলায় তাঁরা জামিনের আবেদন করেছিলেন।

দুদকের আইনজীবী খন্দকার মজিবর রহমান বলেন, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে আবু বকর ও তাঁর স্ত্রী সুলতানা রাজিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন দুদকের উপসহকারী পরিচালক মো. আল-আমিন। ২০২১ সালের ৯ নভেম্বর মামলা দুটি করা হয়েছিল। এর মধ্যে আয়বহির্ভূত ৩৩ লাখ ৮৯৫ টাকার সম্পদ অর্জনের অভিযোগে আবু বকর সিদ্দিকের বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়। আর অন্য মামলাটি করা হয়েছিল ওই সম্পদ স্ত্রী সুলতানা রাজিয়াকে হস্তান্তর করার অভিযোগে।

আইনজীবী খন্দকার মজিবর রহমান বলেন, মামলায় প্রাথমিকভাবে প্রায় ৩৪ লাখ টাকার দুর্নীতি ধরা পড়লেও তদন্তে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিসহ আবু বকর সিদ্দিকের আরও প্রায় ৫১ কোটি টাকার অবৈধ সম্পত্তির খোঁজ পাওয়া গেছে। এ সবকিছু পরবর্তীকালে মামলার এজাহারে সম্পৃক্ত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন