খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের (কেপিসিএল) সহকারী প্রকৌশলী ইমরান মাহমুদের (২৩) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার দুপুরের দিকে খুলনা নগরের খালিশপুরে অবস্থিত ওই কোম্পানির ডরমিটরির একটি কক্ষ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ বলছে, ওই কক্ষের টেবিলে ইমরান মাহমুদের হাতে লেখা একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। তাতে লেখা, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।’ পুলিশের ধারণা, যেকোনো কারণে মানসিক চাপ সইতে না পেরে তিনি আত্মহত্যা করতে পারেন। ইমরান মাহমুদের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে। কিছুদিন আগে তিনি বিয়ে করেছেন।

ওই প্রকৌশলীর সহকর্মীদের ভাষ্য, আজ সকালের শিফটে কাজে যোগ না দেওয়ায় ইমরানকে খোঁজাখুঁজি করা হয়। পরে ডরমিটরিতে তাঁর নিজের কক্ষের জানালা দিয়ে তাঁকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখা যায়। তবে কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন, তা কেউ বলতে পারেননি।

খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মোস্তাক আহমেদ বলেন, ‘সুইসাইড নোট’ ও পারিপার্শ্বিক অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, ইমরান মাহমুদ আত্মহত্যা করেছেন। দুপুরের দিকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0