default-image

খুলনার তেরখাদা উপজেলার ফিরোজ শেখ হত্যা মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। পাঁচ আসামিকে দেওয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এই ৫ আসামিকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. ইয়ারব হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন ফরিদ মোল্লা, মেজবাহ মোল্লা, মোরতোজা ও টুটুল। আর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন মোস্ত মোল্লা, সেলিম শিকদার, নাসির শিকদার, মেহেদী মোল্লা ও শহিদুল শিকদার। তাঁদের সবার বাড়ি তেরখাদা উপজেলার কটেঙ্গা বাজার এলাকায়। মামলায় চারজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মোরতোজা ও যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত আসামি মেহেদী পলাতক ছিলেন। বাকিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১০ সালের ১৫ আগস্ট রাতে তেরখাদা উপজেলার কাটেঙ্গা গ্রামের ফিরোজ শেখকে পূর্বশত্রুতার জেরে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে দুর্বৃত্তরা। ওই রাতেই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাই হিরু শেখ ৩০ জনের নাম উল্লেখ করে তেরখাদা থানায় হত্যা মামলা করেন। ২০১৩ সালের ৬ ডিসেম্বর ১৫ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন