বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিচতলায় অবস্থিত ১৩০ শয্যার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ৫ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও পাঁচজন। ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট খুলনা সদর হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে চারজনের। ওই সময়ের মধ্যে শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন মারা গেছেন। আর বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন চারজন করোনা রোগী।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের মুখপাত্র সুহাস রঞ্জন হালদার বলেন, আজ সকাল পর্যন্ত সেখানে রোগী ভর্তি ১৯৫ জন। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত রোগী ১৩০ জন ও করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন ২৫ জন। এ ছাড়া ওই হাসপাতালে থাকা ২০টি এইচডিইউ শয্যা ও ২০টি আইসিইউ শয্যার কোনোটিই খালি নেই। গত ২৪ ঘণ্টায় ওই হাসপাতালে রোগী ভর্তি হয়েছেন ৪৩ জন। এর মধ্যে ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত ও ১৭ জনের উপসর্গ রয়েছে। এ ছাড়া ওই সময়ের মধ্যে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪২ জন।

এদিকে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট খুলনা সদর (জেনারেল) হাসপাতালে (৮০ শয্যার করোনা ইউনিট) বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত রোগী ভর্তি ৭৬ জন। ওই হাসপাতালের মুখপাত্র কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ওই হাসপাতালে ১২ জন নতুন করোনা রোগী ভর্তি হয়েছেন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন আটজন।

খুলনার শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের মুখপাত্র প্রকাশ চন্দ্র বলেন, ওই হাসপাতালের ১০টি আইসিইউসহ ৪৫ শয্যার করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৪৪ জন করোনা রোগী ভর্তি। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ছয়জন রোগী নতুন করে ভর্তি হয়েছেন। এ ছাড়া ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি গেছেন ছয়জন। ওই সময়ের মধ্যে সেখানে কোনো একজন রোগী মারা গেছেন।

বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গাজী মিজানুর রহমান বলেন, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। ১৫০ শয্যার করোনা ইউনিটে বর্তমানে ১৩০ জন রোগী ভর্তি। এর মধ্যে আইসিইউতে ৯ জন এবং এইচডিইউতে ১১ জন চিকিৎসাধীন। ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ৩০ জন ভর্তি হয়েছেন আর হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে ২৫ জন রোগীর।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন