default-image

খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ২৬১ জন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে বিভাগে মোট করোনায় সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা হলো ৬ হাজার ২৬৯। বিভাগের রোগীদের ৪৪ শতাংশই খুলনা জেলার।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) মো. মনজুরুল মুরশিদ আজ বৃহস্পতিবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা হলো ১১৪।

বিভাগের মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় প্রথম কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় গত ১৯ মার্চ। পরবর্তী ৭৩ দিনে শনাক্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়ায়। ৮ জুলাই ১১২তম দিনে এসে রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়াল।

নতুন শনাক্ত রোগীদের মধ্যে খুলনা জেলায় ৭১, বাগেরহাটে ৩৪, চুয়াডাঙ্গায় ৭, যশোরে ২৯, ঝিনাইদহে ৩৩, কুষ্টিয়ায় ৩৫, মাগুরায় ৬, মেহেরপুরে ২, নড়াইলে ২০ ও সাতক্ষীরায় ২৪ জন রয়েছেন।

অধিদপ্তরের দেওয়া হিসাবে সংক্রমণ ও মৃত্যু—দুই সূচকেই বিভাগের মধ্যে খুলনার ধারেকাছে অন্য কোনো জেলা নেই। মোট সংক্রমিত ৬ হাজার ২৬৯ জনের মধ্যে ২ হাজার ৭৫১ জনই খুলনার। আর বাগেরহাটে ২৬৭, চুয়াডাঙ্গায় ২৭৬, যশোরে ৮৩৪, ঝিনাইদহে ৩৬৬, কুষ্টিয়ায় ৮৫০, মাগুরায় ১৮২, মেহেরপুরের ৯৭, নড়াইলে ৩৪৩ ও সাতক্ষীরায় ৩০৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিভাগের মধ্যে খুলনায় সবচেয়ে বেশি ৪৩ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ১৯, যশোরে ১৪, নড়াইল ও মাগুরায় ৭ জন করে, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে ৬ জন করে, সাতক্ষীরা ৫, বাগেরহাটে ৪ এবং চুয়াডাঙ্গায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্যমতে, বিভাগে নতুন ১০৮ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ হলেন মোট ২ হাজার ২৩০ জন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থ হওয়ার হার প্রায় ৩৬ শতাংশ। তাঁদের মধ্যে বাগেরহাটে ১৬০, চুয়াডাঙ্গায় ১৭৫, যশোরে ৩৭২, ঝিনাইদহে ১২১, খুলনায় ৬৭৭, কুষ্টিয়ায় ৪২১, মাগুরায় ৬৮, মেহেরপুরের ৪৬, নড়াইলে ১১৭ ও সাতক্ষীরায় ৭৩ জন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0