বিজ্ঞাপন

গত ২৪ ঘণ্টায় ঝিনাইদহ ও খুলনায় একজন করে করোনা রোগী মারা গেছেন। বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনা জেলায় রয়েছেন ১৬১ জন, কুষ্টিয়ায় ১০৯ জন, যশোরে ৭৬ জন, ঝিনাইদহে ৫৫ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৫৩ জন, সাতক্ষীরায় ৪৪ জন, বাগেরহাটে ৩৬ জন, নড়াইলে ২৫ জন, মাগুরায় ২৩ জন এবং মেহেরপুরে ১৯ জন। মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ১১০ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে বিভাগে করোনায় আক্রান্তের পর এখন পর্যন্ত সুস্থ হলেন ৩০ হাজার ৪০৫ জন। সুস্থতার হার প্রায় ৯৩ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনা জেলায় রয়েছেন ৫৬ জন, তাঁদের ৪৭ জনই খুলনা নগরের। এ ছাড়া বাগেরহাটে ১২ জন, চুয়াডাঙ্গায় ২ জন, মেহেরপুরে ৭ জন, সাতক্ষীরায় ২১ জন, যশোরে ৩০ জন, কুষ্টিয়ায় ১৮, ঝিনাইদহে ১৯ জন এবং মাগুরা ও নড়াইলে ৩ জন করে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাসায় ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৫৩ জন, তাঁদের মধ্যে ৬ জন আইসিইউতে।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, খুলনা বিভাগের জেলাভিত্তিক হিসাবে এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৭২৬ রোগী শনাক্ত হয়েছেন খুলনা জেলায়। এর মধ্যে খুলনা শহরেই শনাক্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৯০৫ জন। এ ছাড়া বাগেরহাটে শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৬১ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১ হাজার ৯০৭ জন, যশোরে ৬ হাজার ৬৩৫ জন, ঝিনাইদহে ২ হাজার ৮৫৩ জন, কুষ্টিয়ায় ৪ হাজার ৭৪৫ জন, মাগুরায় ১ হাজার ২৪৯ জন, মেহেরপুরে ৯৪৭ জন, নড়াইলে ১ হাজার ৮৫০ জন এবং সাতক্ষীরায় ১ হাজার ৩৬৫ জন করোনা সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন