বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। গত বছরের ৩ জুলাই রোগীর সংখ্যা ৫ হাজার অতিক্রম করে। ২৩ জুলাই শনাক্তের সংখ্যা ১০ হাজার, ১২ আগস্ট রোগী ১৫ হাজার ছাড়ায় । এরপর চলতি বছরের ১ জানুয়ারি ২৫ হাজার, ৩ জুন ৩৫ হাজার , ২০ জুন ৪৫ হাজার এবং ২৫ জুন ৫০ হাজার ছাড়ায়। আজ ১৪ জুলাই শনাক্তের সংখ্যা ৭৫ হাজার ছাড়াল। অর্থাৎ শনাক্তের ২৮৮ দিন পর শনাক্ত প্রথম ২৫ হাজার ছাড়ায়। দ্বিতীয় ২৫ হাজার ছাড়াতে সময় লাগে ১৭৫ দিন। আর তৃতীয় ২৫ হাজার ছাড়িয়েছে মাত্র ১৯ দিনে।

প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় আরটি-পিসিআরের মাধ্যমে ২ হাজার ৯০টি, জিন এক্সপার্টে ১০২টি এবং র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ৩ হাজার ১৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে ১৫টি নমুনা পরীক্ষা কম হয়েছে। বিভাগের মধ্যে শনাক্তের সর্বোচ্চ হার বাগেরহাট জেলায় ৪৩ দশমিক ৯১ শতাংশ। আর শনাক্তের সর্বনিম্ন হার সাতক্ষীরা জেলায় ১০ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনায় শনাক্ত হয়েছে সর্বোচ্চ ৩৭৫ জন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় শনাক্ত হয়েছে ৩২৫ জন, যশোরে ২২৭ জন, বাগেরহাটে ১৫৫ জন, সাতক্ষীরায় ৩৪ জন, নড়াইলে ৯৬ জন, মাগুরায় ৪৭ জন, ঝিনাইদহে ৮৭ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১১১ জন এবং মেহেরপুরে ১৬৪ জন।

বিভাগে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭৬ হাজার ৪০১ জনের। শনাক্ত বিবেচনায় জেলাগুলোর মধ্যে শীর্ষে আছে খুলনা। খুলনায় এখন পর্যন্ত মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৯ হাজার ৮২৩ জনের। এ ছাড়া যশোরে ১৬ হাজার ২০৬, কুষ্টিয়ায় ১১ হাজার ১৯৭, ঝিনাইদহে ৫ হাজার ৯৪৫, বাগেরহাটে ৫ হাজার ১৫, চুয়াডাঙ্গায় ৪ হাজার ৯২৪, সাতক্ষীরায় ৪ হাজার ৬২১ জন, নড়াইলে ৩ হাজার ৫৮১, মেহেরপুরে ২ হাজার ৮১৮ ও মাগুরায় ২ হাজার ২৭১ জন আছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, বিভাগে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৭২৫। মৃত্যুর হার ২ দশমিক ২৬ শতাংশ। করোনায় মারা যাওয়া সর্বশেষ ৩৬ জনের মধ্যে কুষ্টিয়ায় ১১ জন, খুলনায় ৯ জন, ঝিনাইদহে ৭ জন, যশোরে ৫ জন, মেহেরপুরে ২ জন ও চুয়াডাঙ্গায় ও সাতক্ষীরায় ১ জন করে।

বিভাগে করোনায় এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৪৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে খুলনা জেলায়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়ায় ৩৭০ জনের। এ ছাড়া যশোরে মারা গেছেন ২৪৫ জন, ঝিনাইদহে ১৫৩ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১২৭ জন, বাগেরহাটে ১০৩ জন, মেহেরপুরে ৮৫ জন, সাতক্ষীরায় ৭৯ জন, নড়াইলে ৭১ জন ও মাগুরায় ৪০ জন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন