এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আজ বুধবার দুপুরে মঈনুদ্দিন চিশতি (২৫) ও মুহাম্মদ আসিফ (২৪) নামের দুই তরুণকে আটক করেছে হাটহাজারী থানা–পুলিশ। আটক ব্যক্তিরাও আমান বাজার এলাকার বাসিন্দা।

নিহত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা বলেন, গতকাল রাত ১১টার দিকে আইপিএল খেলার বাজি ধরা নিয়ে চায়ের দোকানে ফারুক ও মুহাম্মদ ফরহাদ নামের এক তরুণের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা ও হাতাহাতি হয়। এতে ফরহাদ সামান্য আহত হন। এর জেরে রাত ১টার দিকে ফরহাদ ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল নিয়ে ফারুকের বাসায় হামলা চালান। এ সময় ফারুককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।

হামলার সময় ফারুককে রক্ষা করতে গেলে ফারুকের বোন জেসমিন আকতার (২৫) মাথায় আঘাত পান। পরে ফারুককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাত দুইটার পর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা ফারুককে মৃত ঘোষণা করেন।

জেসমিন আকতার বলেন, ১৫ থেকে ২০ জন তাঁদের ওপর হামলা করেছেন। রাতে হঠাৎ ঘরের দরজা–জানালা ভেঙে হামলাকারীরা ঘরে ঢোকেন। এরপর তাঁর ভাই ফারুককে টেনে–হিঁচড়ে মাটিতে ফেলে উপর্যুপরি কিলঘুষি ও লাথি দিয়ে তাঁদের সামনেই মেরে ফেলেন।

জানতে চাইলে হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, খেলায় বাজি ধরা নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডা থেকে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। লাশের ময়নাতদন্ত চলছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন