মসজিদে বিস্ফোরণ

খোঁড়াখুঁড়ি করা গর্তের মাটি ভরাট করছে তিতাস

বিজ্ঞাপন
default-image

নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকায় মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় পাইপলাইনে লিকেজের সন্ধানে খোঁড়াখুঁড়ি করা গর্তের মাটি ভরাট করছে তিতাস গ্যাস। রোববার সকালে দ্বিতীয় দিনের মতো তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের শ্রমিকেরা পাইপলাইনের গর্তগুলোর মাটি ভরাট শুরু করেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিতাস গ্যাসের শ্রমিকেরা মসজিদের পূর্ব পাশের সামনের সড়কের গর্ত মাটি দিয়ে ভরাট করতে শুরু করেন। সড়কের পাশে স্তূপ করে রাখা মাটি প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে গর্তে ফেলা হচ্ছে। বৃষ্টি ও ড্রেনের পানিতে গর্তগুলো ভরাট হয়ে আছে। সেই পানিভর্তি গর্তের মধ্যে আরসিসি ঢালাইয়ের পাথর খণ্ড ও মাটি ফেলে তিতাসের পাইপলাইন ঢেকে দেওয়ার কাজ করছেন শ্রমিকেরা।

শ্রমিকেরা জানিয়েছেন, সড়কে গর্ত খোঁড়া তিতাসের পাইপলাইনগুলো মাটি ফেলে ঢেকে দেওয়ার কাজ করছেন তাঁরা।

এদিকে সকালে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস ও বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তিতাস গ্যাস নারায়ণগঞ্জ অফিসের উপমহাব্যবস্থাপক মফিজুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, পাইপলাইনে লিকেজ আছে কিনা সেটি দেখতে সড়কের মাটি খোঁড়া হয়েছিল। সেখানে পাইপলাইনে ৬টি ছিদ্র পাওয়া গেছে। আর কোনো ছিদ্র পাওয়া যায়নি। এ কারণে মাটি দিয়ে পাইপলাইনগুলো ও গর্তগুলো ঢেকে দিতে কাজ করছেন শ্রমিকেরা।

গত শুক্রবার রাতে শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে এক শিশুসহ ৩১ জনের মৃত্যু হয়। গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ৫ জন চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস, জেলা প্রশাসন, তিতাস গ্যাস, ডিপিডিসি ও সিটি করপোরেশন পৃথক পাঁচটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। ওই ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানা-পুলিশ তিতাস, ডিপিডিসি, মসজিদ কমিটির বিরুদ্ধে অবহেলাজনিত অভিযোগ এনে মামলা করেছে। মামলাটি তদন্ত করছে সিআইডি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন