ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া বাসের একটি অংশ। ফতেহপুর রেলগেট এলাকা, ফেনী, ১১ অক্টোবর
ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া বাসের একটি অংশ। ফতেহপুর রেলগেট এলাকা, ফেনী, ১১ অক্টোবর প্রথম আলো

ফেনীতে খোলা রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় তিন বাসযাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১১ জন। রোববার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ফেনী সদর উপজেলার ফতেহপুর রেলক্রসিং এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রাথমিকভাবে নিহত তিনজনের পরিচয় জানা যায়নি। আহত ১১ জনকে ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁরা হলেন রাজশাহীর মনিরুল (২০), কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আবদুল কুদ্দুছ (২৫), নাটোরের ফারুক হোসেন (২০), বেলাল (৫৫), সজল (২২), আরিফুল ইসলাম (৩৫) ও আশিক (১৭), চাঁপাইনবাবগঞ্জের রুবেল (৩০), ফেনীর সোনাগাজীর দুলাল (৫০), কিশোরগঞ্জের আজাহারুল ইসলাম (২২) ও পাবনার রন্দু খান (২৪)। তাঁদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিজ্ঞাপন
default-image

রেলওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ভোরে ফতেহপুর রেলক্রসিং এলাকায় বিকট শব্দে স্থানীয়দের ঘুম ভাঙে। পরে তাঁরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন, দুর্ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তাঁরা উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেন। খবর পেয়ে ফেনী সদর-থানা পুলিশ ও রেলওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজে অংশ নেয়।

ফেনী রেলস্টেশনের জিআরপি পুলিশের উপপরিদর্শক সাইফুল ইসলাম বলেন, যাত্রীবাহী বাসটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে চট্টগ্রামে যাচ্ছিল। আর ‘ঢাকা মেইল’ নামের ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে যাচ্ছিল। ফতেহপুর রেলক্রসিংটি খোলা ছিল, কোনো রেলবার ছিল না। ফলে বাস ও ট্রেন একসঙ্গে রেলক্রসিংটি পার হওয়ার সময় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত ও ১১ জন আহত হওয়ার খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন ফেনী রেলওয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, লাশগুলো ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0