বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফরিদ উদ্দিন জানান, সোনালী ব্যাংক ধুনট শাখায় তাঁর অবসর ভাতার টাকা জমা রয়েছে। সেখান থেকে আজ সকালে ১ লাখ ৯৫ হাজার টাকা তোলেন তিনি। পরে ওই টাকা তিন ভাগে ভাগ করে তাঁর ব্যাগের ভেতর ঢুকিয়ে রাখেন। এরপর ব্যাংক থেকে বের হয়ে পাশের একটি কম্পিউটারের দোকানে ঢোকার কিছুক্ষণ পর খেয়াল করেন তাঁর ব্যাগ থেকে ৫০ হাজার টাকা খোয়া গেছে।

সোনালী ব্যাংকের ধুনট শাখার ব্যবস্থাপক মাহবুবুল হক জানান, আজ সকালের দিকে অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক ফরিদ উদ্দিন ব্যাংক থেকে অবসর ভাতার টাকা তুলেছিলেন। কিছুক্ষণ পর ফিরে এসে তিনি জানান, তাঁর ৫০ হাজার টাকা খোয়া গেছে। তাঁকে আইনের আশ্রয় নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা কৃপা সিন্ধু বালা জানান, এ ঘটনায় এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে মৌখিকভাবে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন