default-image

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার কৃষক মো. মোসলেম বিশ্বাসকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় কেড়াকাছি সীমান্ত থেকে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার দুজন হলেন মোসলেম বিশ্বাসের ছোট জামাতা (মেয়ের স্বামী) আবুল কালাম আজাদ ও আজাদের ভাতিজা হাবিবুর রহমান। তাঁদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, আজ শনিবার সকালে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দা ও গ্লাভস উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার আবুল কালাম মাদ্রাসাশিক্ষক। মাদ্রাসার পরিচালনা পর্ষদ নিয়ে আবুল কালামের সঙ্গে একটি পক্ষের বিরোধ ছিল। একই পক্ষের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ ছিল আবুল কালামের শ্বশুর মোসলেম বিশ্বাসের। প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে তিনি ও তাঁর ভাতিজা পরিকল্পিতভাবে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর্জা সালাহ উদ্দীন বলেন, গ্রেপ্তার দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। তাঁদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত দা ও গ্লাভস উদ্ধার করা হয়েছে।

গত বুধবার রাতে কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া গ্রামের বিশ্বাসপাড়া থেকে মোসলেম বিশ্বাসের (৭৩) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় তাঁর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান বাদী হয়ে কারও নাম উল্লেখ না করে হত্যা মামলা করেন।

মন্তব্য করুন