আহত ব্যক্তিদের প্রথমে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁদের মধ্যে তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। বাকি পাঁচজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলা যুব অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব সাখাওয়াত হোসেন বলেন, তাঁরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা করছিলেন। সভার শেষ মুহূর্তে হঠাৎ ২০ থেকে ২৫ জন দুর্বৃত্ত লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালিয়ে মারধর করে। এতে তাঁদের আট নেতা-কর্মী আহত হন।

এ প্রসঙ্গে গাইবান্ধা সদর থানার ওসি মাসুদুর রহমান মুঠোফোনে বলেন, ঘটনাটি শুনেছেন। তবে এ নিয়ে কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন