default-image

গাইবান্ধা পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্ত না মেনে মেয়র পদে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হওয়ায় আওয়ামী লীগের তিন নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। দল থেকে বহিষ্কৃত তিন নেতা হলেন মো. আহসানুল করিম (চামচ), ফারুক আহমেদ (ক্যারমবোর্ড) ও পৌরসভার বর্তমান প্যানেল মেয়র মো. মতলুবর রহমান (নারকেলগাছ)।

১৬ জানুয়ারি গাইবান্ধা পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে মেয়র পদে আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন পৌরসভার বর্তমান মেয়র শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর (নৌকা)। কিন্তু তাঁর বিরুদ্ধে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে ওই তিনজন মেয়র প্রার্থী হন।

গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক সাইফুল আলম স্বাক্ষরিত এক পত্রে জানানো হয়, গতকাল শুক্রবার জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে দলীয় মেয়র প্রার্থীর বিপক্ষে প্রার্থী হওয়ায় জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আহসানুল করিম এবং জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফারুক আহমেদকে তাঁদের পদ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।
অন্যদিকে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমারুল ইসলাম বলেন, দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে মেয়র পদে পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মতলুবর রহমান অংশ নেওয়ায় তাঁকে তাঁর পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। ১০ দিনের মধ্যে তিনি সন্তোষজনক জবাব না দিতে পারলে দলের প্রাথমিক সদস্যপদ থেকেও তাঁকে বহিষ্কার করা হবে।

জানতে চাইলে শনিবার বিকেলে মেয়র প্রার্থী মতলুবর রহমান বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। দলের জন্য কাজ করছি। দল আমাকে বহিস্কার করলেও আমি দল ছাড়ব না।’ সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হলে তিনি জয়ী হবেন বলেও দাবি করেন।

আরেক মেয়র প্রার্থী ফারুক আহমেদ বলেন, ‘আমি জনগণের সমর্থন নিয়ে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি। দল বহিষ্কার করতে পারে। কিন্তু আমি দল ছাড়ব না, দলের সঙ্গেই থাকব।’

আরেক প্রার্থী আহসানুল করিমের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। তবে তাঁর ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন