default-image

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে প্লাস্টিক বোতলের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একটি কলোনিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনায় ওই কলোনির ছয়টি কক্ষ ও কক্ষে থাকা বিভিন্ন মালামাল পুড়ে নিঃস্ব হয়েছে ছয়টি পরিবার। পরে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

এলাকাবাসী, ফায়ার সার্ভিস ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার টান সূত্রাপুর এলাকার আলাল উদ্দিনের কলোনিতে বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে রাশেদুল হকের ভাড়া কক্ষে প্লাস্টিক বোতলের সিলিন্ডার গ্যাস লিকেজ হয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন পুরো কলোনিতে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন নেভাতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন এলাকাবাসী। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ও পাশের জিএমএস কারখানার নিজস্ব ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে আগুনে কলোনির ছয়টি কক্ষ ও কক্ষে থাকা ফ্রিজ, টেলিভিশন, চেয়ার-টেবিল, চাল, ডাল, বিভিন্ন সনদ, টাকাসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে যায়। আগুন নেভাতে গিয়ে এবং তাড়াহুড়ো করে বাইরে বের হতে গিয়ে কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ওই কলোনিতে ভাড়া থাকা রাশেদুল হক, আইয়ুব মিয়া, সজিব হোসেন, মাইদুল হাসিবুল ও অহেদ আলীরসহ ছয়টি পরিবার একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে।

ওই কলোনির মালিক আলাল উদ্দিন বলেন, প্রতি কক্ষেই লোহার সিলিন্ডার বোতলে গ্যাস থাকলেও ভাড়াটে রাশেদুল হকের কক্ষে ঝুঁকিপূর্ণ প্লাস্টিক বোতলে সিলিন্ডার গ্যাস ছিল। ওই কক্ষে রান্না করার সময় অল্প তাপেই প্লাস্টিক বোতল গলে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনে পুড়ে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা কবিরুল আলম জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ওই কলোনির ছয়টি কক্ষ ও কক্ষে থাকা বিভিন্ন মালামাল পুড়ে গেছে। তবে আগুনে পুড়ে যাওয়ার ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিক নিরূপন করা যায়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন