default-image

গাজীপুরে মাদক ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গতকাল সোমবার রাতে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ছুরিকাঘাতে এক স্কুলছাত্র নিহত ও অপর এক ছাত্র আহত হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

নিহত স্কুলছাত্র ময়মনসিংহের গৌরীপুরের দীপপুর এলাকার এজাজুল হকের ছেলে নূরে আলম শাকিল (১৭)। তারা সপরিবার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের গাছা থানাধীন কুনিয়াপাছর এলাকার রুবেল মোল্লার বাসায় ভাড়া থাকে। শাকিল স্থানীয় একটি স্কুলের ৯ম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

আটক যুবক হলেন কুনিয়াপাছর এলাকার ইসমাইল হোসেনের ছেলে মো. হাবিবুল্লাহ (২৪)।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, কুনিয়াপাছর এলাকায় মাদক ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় দুটি পক্ষের মধ্যে কয়েক দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে স্থানীয় তালেব মার্কেটের সামনে সোনাপাড়া এলাকার ২৪ থেকে ২৫ কিশোর ও যুবক অবস্থান নেন। এ সময় সেখানে প্রতিপক্ষের শাকিল মিয়া (১৭) ও মো. ফাহিমের (১২) সঙ্গে তাঁদের কথা-কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। একপর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজন শাকিল ও মো. ফাহিমকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান।

বিজ্ঞাপন

এলাকাবাসী গুরুতর আহত শাকিল ও ফাহিমকে স্থানীয় তায়েরুন্নেছা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে শাকিলকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। ফাহিমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। রাতেই অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে হাবিবুল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ইসমাইল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় নিহত ছাত্রের বাবা এজাজুল হক বাদী হয়ে গাছা থানায় ৭ থেকে ৮ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন