বিজ্ঞাপন

গাজীপুর মহানগর ট্রাফিক পুলিশের সহকারী কমিশনার (উত্তর) মো. মেহেদী হাসান বলেন, ঈদ শেষে বিভিন্ন পরিবহনে যাত্রীরা পরিবার-পরিজন নিয়ে আবার কর্মস্থলে ফিরছেন। এসব যাত্রী নিয়ে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দূরপাল্লার কিছু বাস ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চলাচল করছিল। গতকাল রোববার বিকেল থেকে আজ সোমবার দুপুর পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর মহানগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে এ ধরনের ৪৫টি বাসের চালক ও মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। পাশাপাশি রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির অভিযোগে আরও ১০টি গাড়িকে ডাম্পিং করা হয়েছে। ঈদের পর রোববার থেকে গাজীপুরের সড়ক-মহাসড়কে লোকাল বাস, প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, মিনিবাসসহ বিভিন্ন পরিবহনে ঈদ ফেরত মানুষের ভিড় লক্ষ করা গেছে।

সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দূরপাল্লার কিছু বাস ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চলাচল করছিল।

গাজীপুরের কোনাবাড়ীর সালনা মহাসড়ক থানার ওসি মীর গোলাম ফারুক বলেন, একই অভিযোগে চন্দ্রা ও কোনাবাড়ী এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে দূরপাল্লার ৪৬টি বাসের চালক-মালিকের বিরুদ্ধে মামলা ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকায় চারটি গাড়িকে আটক করা হয়েছে।

মাওনা হাইওয়ে থানার ওসি মো. কামাল হোসেন বলেন, শ্রীপুর উপজেলার মাওনা-চৌরাস্তা এলাকায় রোববার সন্ধ্যায় দূরপাল্লার বাস যাত্রী নিয়ে চলাচলের চেষ্টা করলে ৬টি বাসের চালকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

তবে মহাসড়কে লোকাল বাস, মিনিবাস, পণ্যবাহী ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, অটোরিকশা চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। রোববার বিকেল থেকেই এসব গাড়িতে ঈদের ছুটি শেষে কর্মস্থলমুখী যাত্রীদের চাপ লক্ষ করা গেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন