বিজ্ঞাপন

পুলিশ, কারখানার শ্রমিক ও কর্মীদের ভাষ্য, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের লক্ষ্মীপুরা এলাকায় স্টাইল ক্রাফট লিমিটেড পোশাক কারখানায় প্রায় ৪ হাজার শ্রমিক ও ৭০০ কর্মী আছেন। জুনের বেতন ও ঈদুল আজহার বোনাস এখন পর্যন্ত তাঁরা পাননি। বেতন-ভাতা ও বোনাসের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত আন্দোলন করে শ্রমিক-কর্মচারীরা বাড়ি ফিরে যান। শুক্রবার ছুটির দিন শ্রমিকেরা আন্দোলন বন্ধ রাখেন। আজ শনিবার সকাল থেকে আবারও তাঁরা বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেন। এতে ওই এলাকার সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায় এবং দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। সকালে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক গাজীপুর শহরের বাড়ি থেকে বেরিয়ে কালিয়াকৈরের দিকে যাচ্ছিলেন। শ্রমিকেরা তাঁর গতি রোধ করেন। মন্ত্রী আগামী রোববারের মধ্যে তাঁদের পাওনা পরিশোধের আশ্বাস দিয়ে চলে যান।

কারখানার শ্রমিক জাহানারা বেগম বলেন, চলতি মাসের ১৭ দিন হয়ে গেলেও বেতন পাচ্ছেন না। ঈদ বোনাসও পাননি। ঘরভাড়া দিতে না পেরে বাড়ির মালিকের নানা ধরনের কথা শুনতে হচ্ছে। বেতন–বোনাস না পেলে ঈদে বাড়ি যাবেন কীভাবে, সে চিন্তায় আছেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন শিল্প পুলিশের পরিদর্শক সমীর চন্দ্র সূত্রধর বলেন, প্রতি মাসেই শ্রমিকেরা আন্দোলন করলে তাঁদের বেতন পরিশোধ করা হয়। গাজীপুরে আর কোনো কারখানায় এমন না হলেও ওই কারখানায় প্রতি মাসে শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দেয়।

স্টাইল ক্রাফট লিমিটেড পোশাক কারখানার মালিক সামস আলমাস। এ বিষয়ে কথা বলতে তাঁর মুঠোফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন