বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওই ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কোথাও ঝাড়ুমিছিল, কোথাও বিক্ষোভ মিছিলসহ সড়কে টায়ার চালিয়ে প্রতিবাদ করেন তাঁরা। এতে সড়কের উভয় পাশে দুই ঘণ্টার বেশি সময় ধরে যান চলাচল বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পড়ে হাজারো মানুষ।

আজ বেলা সাড়ে তিনটা থেকেই ঢাকা–ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী স্টেশন রোড, মিলগেট, চেরাগ আলী, কলেজগেট ও হোসেন মার্কেট এলাকায় একত্র হতে থাকেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা–কর্মীরা। এ সময় তাঁরা প্রথমে সড়কে ঝাড়ু নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

পরে টঙ্গীর স্টেশন রোড এলাকা, চেরাগ আলী, কলেজগেট ও হোসেন মার্কেট এলাকায় সড়ক অবরোধ করে টায়ারে আগুন দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সড়ক অবরোধ চলেছে বিকেল চারটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত। এরপর টঙ্গী রেলস্টেশন এলাকায় রেললাইনের ওপর টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন তাঁরা।

বিকেল চারটার দিকে সরেজমিনে দেখা যায়, কলেজগেট এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে টঙ্গী সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগ। সেখানে মেয়রবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান ও বক্তব্যদিয়েছে তারা।

একইভাবে স্টেশন রোড, চেরাগ আলী, হোসেন মার্কেট এলাকায় বিক্ষোভ করেছেন যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা–কর্মীরা। এর মধ্যে স্টেশন রোড এলাকায় সড়কের দুই পাশেই টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন তাঁরা।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ খান প্রথম আলোকে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে উক্তি করা হয়েছে, সেটা অমার্জনীয় অপরাধ। রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল। আমাদের নিয়ে যা বলেছে, সেটা নাহয় গায়ে মাখলাম না। কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে কথা বলছে, সেটা মেনে নেওয়া যায় না। আমরা বিষয়টি নিয়ে দলীয়ভাবে বসে সিদ্ধান্ত নেব।’

এ বিষয়ে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল প্রথম আলোকে বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে মন্তব্য করছে, সেটা আমরা কোনোভাবেই মানতে পারি না।’

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভিযোগের বিষয়ে গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তাঁকে নিয়ে একটি পক্ষ নানা ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে তাঁর কিছু কথা এডিট করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার করেছে। যা প্রচার করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। এসব ষড়যন্ত্র করে প্রচার করা হয়েছে বলে দাবি করে বৃহস্পতিবার তিনি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও বার্তাও প্রচার করেছেন।

এদিকে মেয়রের ওই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর গত বুধবার থেকেই মানববন্ধন করে প্রতিবাদ জানাতে শুরু করেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীরা। ওই ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে বিক্ষোভকারীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুরা এলাকায় কিছুক্ষণের জন্য অবরোধ সৃষ্টি করে। এতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শাহজাহান মিয়া, ৪৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতা আফসার উদ্দিন, শামসুল হক প্রমুখ বক্তব্য দেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন